মুখ ভর্তি দাড়ি থাকায় গিনেজ বুকে স্থান পেয়েছে যে নারী

বিশ্ব রেকর্ড

একটি নারীর মুখে দাড়ি, কথাটা শুনতেই কেমন লাগে। সাধারণত পুরুষদের মুখে দাড়ি থাকে। তবে মাঝে মাঝে কিছু মেয়েদের মুখে সামান্য দাড়ি দেখা যায়।

মুখে কোন তিল থাকলে সেই তিলের আশে পাশে দাড়ি গজাতে দেখা যায়। আবার অনেক সময় স্বল্প পরিসরে গোঁফ এবং দাড়িওয়ালা মেয়ে দেখা যায়। মেয়েদের মুখে এমন দাড়ি হওয়ার পেছনে হরমনের প্রভাব রয়েছে। তবে ছেলেদের মত এবার সমস্ত মুখে দাড়ি থাকায় একটি মেয়ে গিনেজ বুকে তার নাম লেখালো। তার নাম হরনাম কৌর। তিনি ১৯৯০ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ভারতীয় বংশভুত হলেও ইংল্যান্ডেই বেড়ে উঠেছেন।

১১ বছর বয়স থেকেই তার মুখে সামান্য দাড়ি উঠতে শুরু করে। দিনদিন তার মুখে অনেক বেশি দাড়ি গজাতে শুরু করে। প্রথম দিকে তিনি ইতস্ত বোধ করতেন এবং নিজেকে কিছুটা লুকিয়ে রাখার চেষ্টা করতেন। পরবর্তীতে তিনি নিয়মিত দাড়ি কাটা শুরু করেন। সবাই তাকে নিয়ে হাসাহাসি করত। যখন তার বয়স ১৬ বছর, তখন তিনি শিখ ধর্মে দীক্ষা গ্রহণ করা শুরু করেন। শিখ ধর্মে চুল দাড়ি কাটা নিষেধ। তাই তিনি দাড়ি কাটা ছেড়ে দিলেন।

দিন দিন তার দাড়ির জন্য তিনি সবার কাছে পরিচিত হতে শুরু করেন। এক সময় স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা বেয়ার্ড সিজন প্রকল্পে সুন্দর দাড়ি থাকা ব্যক্তিদের তালিকায় তার নাম উঠে আসে। তারপর ২০১৫ সালের ৭ই সেপ্টেম্বর তার মুখ ভর্তি দাড়ি থাকায় গিনেজ বুকে নাম লেখিয়ে বিশ্ব রেকর্ড করেন। এখন তিনি মুখ ভর্তি দাড়িওয়ালা বিশ্ব রেকর্ডকারী একজন নারী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *