ইন্টারভিউ দিতে গিয়ে এই 10 টি কাজ কখনই করবেন না

লাইফস্টাইল

আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন, যারা কোনো চাকরির ইন্টারভিউ দেওয়ার জন্য ইন্টারভিউ হলে গিয়ে খুবই বিচলিত হয়ে পরেন। বিচলিত হওয়ার কারণে তারা ইন্টারভিউ বোর্ড সদস্যদের সামনে এমন কিছু কাজ করে থাকেন, যার কারণে তাদের প্রতি ইন্টারভিউ বোর্ড সদস্যদের একটি খারাপ ইম্প্রেশন তৈরি হয়। আর এই খারাপ ইম্প্রেশন আপনার চাকরি না হওয়ার পেছনে অনেক বড় ভূমিকা রাখতে পারে। আপনার ইন্টারভিউ পারফেক্ট এবং আপনার প্রতি ইন্টারভিউ বোর্ড সদস্যদের অনেক ভালো ইম্প্রেশন তৈরি করার জন্য এই ১০ টি কাজ কখনই করবেন না।

 

১ঃ  প্রথমত মানসিক ভাবে প্রস্তুত থাকতে হবে। তারপর ইন্টারভিউ হলে প্রবেশ থেকে শুরু করে যে কোনো কাজই বোর্ড সদস্যদের অনুমতি না নিয়ে করবেন না। ইন্টারভিউ হলে ঢোকার জন্য তাদের অনুমতি নিতে হবে। ভেতরে যাওয়ার পর অনুমতি না নিয়ে কখনই বসবেন না এমনকি ফাইল থেকে কিছু পরে গেলে তা তোলার জন্যও তাদের অনুমতি নিতে হবে।

২ঃ ইন্টারভিউ হলে কখনও দেরি করে যাবেন না। ইন্টারভিউ শুরু হওয়ার কমপক্ষে ১ ঘন্টা আগে চলে যান।

৩ঃ আমাদের সবারই কোনো না কোনো বডি ল্যাংগুয়েজ আছে। ইন্টারভিউ হলে প্রবেশের পর এই বডি ল্যাংগুয়েজ প্রকাশ করা যাবে না। আপনার এই অভ্যাস আপনার চাকরি না হওয়ার কারণ হতে পারে।

৪ঃ ইন্টারভিউ হলে মোবাইল ফোন নিয়ে না যাওয়াই ভাল। আর যদি নিয়েও যান, তবুও বন্ধ করে রাখবেন। কারণ ইন্টারভিউ হল একপ্রকার পরীক্ষার হলের মতো। যেখানে থাকা অবস্থায় হঠাৎ আপনার মোবাইলে কল চলে আসলে ইন্টারভিউ বোর্ড সদস্যদের কাছে বেপারটা খারাপ লাগার সম্ভাবনা রয়েছে।

৫ঃ আপনার ইন্টারভিউ শেষ হওয়ার পর যখন ইন্টারভিউ বোর্ড সদস্যরা আপনাকে বলবে, “এবার আপনি আসতে পারেন” তখন হুটহাট করে চলে আসবেন না। ইন্টারভিউ বোর্ড সদস্যদের সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে তারপর সেখান থেকে আসুন। ধন্যবাদ না জানানোটা তাদের কাছে আপনার ব্যক্তিত্যের ক্ষেত্রে খারাপ ইম্প্রেশন তৈরি করে।

৬ঃ ইন্টারভিউ বোর্ড সদস্যদের কেউ যখন আপনাকে প্রশ্ন করবে তখন তার চোখের দিকে তাকিয়ে উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করুন।

৭ঃ সব সময় সংক্ষিপ্তভাবে প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করুন। আপনাকে যা জিজ্ঞেস করা হবে শুধু তার উত্তর দিবেন এবং নিজের উত্তর সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করতে হবে। উত্তরের সাথে অতিরিক্ত তথ্য দিবেন না।

৮ঃ ইন্টারভিউ বোর্ড সদস্যদের প্রশ্ন করার পর যতটা কম সময়ে উত্তর দেওয়া যায় তার চেষ্টা করুন। প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য অতিরিক্ত সময় নেওয়া ঠিক নয়।

৯ঃ কখনও খুব বেশি ক্যাজুয়াল হবেন না। অতিরিক্ত ক্যাজুয়াল ভাবে কোনো ব্যাপার নিলে তাতে ভুল হওয়ার সম্ভবনাই বেশি থাকে। তাই ইন্টারভিউকে কখনও অতিরিক্ত ক্যাজুয়ালি নিবেন না।

১০ঃ ইন্টারভিউ হলে যদি আপনার কাছে কোনো বিশেষ ব্যক্তির নাম জিজ্ঞেস করা হয় যেমন, দেশের প্রধানমন্ত্রী, রাষ্ট্রপতি ইত্যাদি, তাহলে শুধু নাম কখনই বলবেন না। প্রধানমন্ত্রীর নামের আগে “মাননীয়” এবং  রাষ্ট্রপতির নামের আগে “মহামান্য” ব্যবহার করুন।

এছাড়া নিজের প্রতি আত্মবিশ্বাস বজায় রাখুন। তাহলে আপনি ইন্টারভিউয়ে ভাল করতে পারবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *