নিজের রাগকে কিভাবে কন্ট্রোল করবেন

লাইফস্টাইল

আমরা অনেক সময় কোন মানুষের কথা শুনে বা কাজে বিরক্ত হয়ে যায়। এমন কি নিজে কোন কিছু না করতে পেরে নিজের উপরই ভরসা হারিয়ে ফেলি। আবার এমন কিছু করে বসি যা করা ভালো দেখাই না। এটা এমন একটা বিষয় যা না চাইতেই হয়ে যাই। কোনো কিছুই অতিরিক্ত ভালো নই ঠিক রাগ টা ও তাই। এর কারণে যেমন আপনি কষ্ট পেতে পারেন, ঠিক তেমনি আপনার কাছের মানুষগুলো আপনার থেকে কষ্ট পেয়ে থাকে।

হঠাৎ রেগে যাওয়া স্বাভাবিক কিন্তু সেই রাগটাকে কন্ট্রোল না করতে পারাটা অস্বাভাবিক। অতিরিক্ত রাগ এর কারণে আপনি শারীরিক ও মানসিক ক্ষতির সম্মুখীন হবেন। অতিরিক্ত রাগের কারণে হঠাৎ করে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যেতে পারেন। এই জন্য রাগকে কন্ট্রোল করতে হবে। আসুন আজ জেনে নিই কিভাবে নিজের রাগকে নিজের কন্ট্রোলে রাখবেন।

১.যদি কোন মানুষের সাথে কথা বলতে যেয়ে আপনি তার কথাই রেগে যান, তাহলে কথার মাঝে বিরতি নিয়ে নেন। সেই বিষয় নিয়ে পরে কথা বলুন। এতে তার সাথে আপনারা সম্পর্ক ভালো থাকবে। আর আপনার রাগটাও কমে যাবে।

২.যদি কোন কাজ করতে যেয়ে রাগ হয়ে যাই, তবে আপনি যে ধর্মের হোন না কেন আপনার সৃষ্টিকর্তাকে স্মরণ করুন। তাহলে আপনার রাগটা কমে যাবে।

৩.সাধারণত মানুষের কোন বিষয় নিয়ে রাগ হলে ২.৫ মিনিট মতো স্থায়ী হয়। যদি আপনি নিজেকে সেই সময়টাই ৩ মিনিট মতো শান্ত বা স্থির রাখতে পারেন, তাহলে আপনি রাগকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন।

৪.রাগ এর মধ্যে হাসতে চেষ্টা করবেন, তাহলে আপনার রাগ এমনিতেই চলে যাবে। প্রতিদিন নিয়মিত হাসবেন এতে আপনার মন ও শরীর দুটোই ভালো থাকবে।

৫.অনেক বেশি রাগ হলে নিজের পছন্দসই মানুষের সাথে কোন ভালো সময় বা মুহূর্তের কথা মনে করুন যা আপনার মনকে কিছু সময় এর জন্য অন্য দিকে ঘুরিয়ে দিবে। সেই সাথে রাগটাও হালকা হয়ে যাবে।

৬.ধৈর্যশীল ও সংযমী হতে শিখুন। যেখানে সেখানে না বুঝে কথা বলবেন না।

৭.বেশি রেগে গেলে দীর্ঘঃশ্বাস নিবেন, এতে আপনার রাগ একটু হলেও কমবে।

৮.আপনারা রাগ হবার কারণ জানতে চেষ্টা করবেন। এতে করে আপনারা যা করলে রাগ হয় সেই কাজ থেকে বিরত থাকতে পারবেন।

৯.রাগ কমাতে আপনি হাত দিয়ে ঠান্ডা ধরনের কিছু ধরতে পারেন। আবার গোসল করে নিজেকে ফ্রেশ করে নিতে পারেন। এতে আপনি আগের থেকে ভালো অনুভব করবেন।

১০.যখন দেখবেন কোন ভাবেই রাগ কমছে না, তাহলে কোন পাহাড় বা সমুদ্র এমনকি নিজের পছন্দের কোন জায়গা থেকেও ঘুরে আসতে পারেন। এতে আপনার রাগও কমবে আবার মনটাও সতেজ থাকবে।

মানুষ মূলত সামাজিক জীব। তাই সবার সঙ্গে থাকাটা জরুরী। তাই সবার মাঝে শৃঙ্খলভাবে নিজেকে উপস্থাপন করতে নিজের রাগকে কন্ট্রোল করার চেষ্টা করাটাই শ্রেয়। আমি বা আপনি কখনো চাইবো না নিজের আচরণ অন্য কোন মানুষের খারাপ লাগার কারণ হয়ে দাঁড়াক। রাগ যে করে বা যার উপর করে দুই জনই ক্ষতিগ্রস্ত হয়। আমরা যদি নিজের রাগকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারি, তাহলে যেমন নিজে ভালো থাকতে পারি আবার নিজের কাছের মানুষগুলোকেও ভালো রাখতে পারি। আমার মনে হয় উপরের বিষয়গুলো আপনাকে রাগ কমাতে সাহায্য করবে ইনশাআল্লাহ। আর আপনার কাছে যদি আরও বিষয় জানা থাকে, তবে অবশ্যই কমেন্টের মাধ্যমে জানাবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *